বলিউডে আসবেন না ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ মানুষী

ভারতের নারীদের স্বাস্থ্য সচেতনতা নিয়ে কাজ করছেন মানুষী। ছবি: ইনস্টাগ্রামচীনের সানাইয়া শহরে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় বসেছিল ‘মিস ওয়ার্ল্ড’-এর চূড়ান্ত অনুষ্ঠান। প্রতিযোগিতার কয়েক ধাপ পেরিয়ে মঞ্চে তখন শীর্ষ পাঁচ সুন্দরীকে ডাকা হলো। এবার প্রশ্ন-উত্তরের পালা। এরপর ঘোষণা করা হবে ‘মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭’-এর নাম। উপস্থাপক মেগান ইয়াং তিন নম্বর প্রতিযোগী মানুষীকে সামনে ডেকে প্রশ্ন করলেন? ‘তোমার কী মনে হয়, কোন পেশার বেতন সবচেয়ে বেশি হওয়া উচিত এবং কেন?’ মানুষী একটুও সময় না নিয়ে উত্তর দিলেন, ‘আমি মনে করি, মাতৃত্বের দায়িত্ব সবচেয়ে বড় আর কঠিন। এ পেশার মূল্য সবচেয়ে বেশি দেওয়া উচিত। মূল্য বা বেতন যে সব সময় নগদ অর্থেই দিতে হবে, তা কিন্তু নয়। একজন মা জীবনে যা ত্যাগস্বীকার করেন, তাঁর প্রতিদান দেওয়া যেতে পারে প্রচুর সম্মান ও ভালোবাসা দিয়ে।’ মানুষীর এই জবাব শুনে বিচারকসহ উপস্থিত সবাই জোরে করতালি নিয়ে তাঁকে অভিবাদন জানান।
১৭ বছর পর ভারতে মিস ওয়ার্ল্ডের মুকুট মানুষীর মাথায় করে ফিরে এল। ছবি: ইনস্টাগ্রাম
মানুষী অর্থ মানবিকতা। এবার ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ ভারতের মানুষী ছিল্লরের নাম তাঁর মা-বাবা খুব ভেবেচিন্তে রেখেছিলেন। প্রতিযোগিতার জন্য তৈরি তথ্যচিত্রে মানুষী জানান, মানুষের জীবনকে মূল্য দেওয়ার শিক্ষা মানুষী তাঁর চিকিৎসক মা-বাবার কাছ থেকে পেয়েছেন সেই শৈশবে। এ জন্য চিকিৎসাশাস্ত্রে পড়াশোনার সিদ্ধান্ত নেন ২০ বছর বয়সী এই সুন্দরী। ভীষণ পড়ুয়া মেয়েটি কিন্তু পড়াশোনার পাশাপাশি নাচ আর খেলাধুলায়ও পারদর্শী।
এই পড়ুয়া মেয়েটিই কিনা ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার প্রস্তুতির জন্য মেডিকেলের পড়া থেকে এক বছর বিরতি নিয়েছেন! এটি ছিল তাঁর জন্য বড় ঝুঁকি। আত্মবিশ্বাসী মানুষী আরও বড় পরিসরে মানবকল্যাণে কাজ করে যেতে চান বলেই ঝুঁকিটি নিয়েছিলেন। এক বছরে নিজেকে যেমন ঝালিয়ে নিয়েছেন, তেমনি সমাজসেবাও করেছেন অনেক। শেষ পর্যন্ত প্রমাণিত হলো, পড়াশোনায় এক বছর ‘ড্রপ’ দিয়ে তিনি ভুল করেননি। দীর্ঘ ১৭ বছর পর, মানুষী ‘মিস ওয়ার্ল্ড’-এর মুকুট ভারতে ফিরিয়ে এনেছেন।
শুধু রূপে নয়, মানুষীর আছে নানা প্রতিভা। ছবি: ইনস্টাগ্রাম‘মিস ওয়ার্ল্ড’ আসরে যাওয়ার আগেই ‘প্রজেক্ট শক্তি’ নামে একটি প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত আছেন মানুষী ছিল্লর। নারীর স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক এ প্রকল্প নিয়ে মানুষী গিয়েছেন ভারতের ২০টি গ্রামের পাঁচ হাজার নারীর কাছে। হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত মানুষদের নিয়েও ভবিষ্যতে কাজ করার ইচ্ছা তাঁর। কার্ডিয়াক সার্জন হওয়ার জন্য অনেক আগেই মনস্থির করে রেখেছেন।
ভারত থেকে এর আগে যে কজন সুন্দরী বিশ্ব আসর থেকে মুকুট ছিনিয়ে এনেছেন, তাঁদের বেশির ভাগই বলিউডে নাম লিখিয়েছেন। এই দলে আছেন সুস্মিতা সেন, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, লারা দত্ত, যুক্তামুখী, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। মানুষীর তো রূপ কম নয়, আর শিল্পের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক স্কুলে ভর্তির আগে থেকে। এমনকি দিল্লির ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামা থেকে অভিনয়ের পাঠ নেওয়া আছে তাঁর। তাহলে কী বলিউড আরেকজন ‘মিস ওয়ার্ল্ড’কে নায়িকা হিসেবে পেতে যাচ্ছে? না, মানুষীর বলিউডে আসার কোনো ইচ্ছা নেই। কারণ, এই সুন্দরী মনে করেন, ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ হওয়ার মানেই বলিউডে প্রবেশপথ তৈরি নয়, বরং এ খেতাব পাওয়ার মানে যেকোনো কাজ করার সুযোগ পাওয়া। তাই বলিউডের জৌলুশে ভরা জগতে নয়, মানুষীকে হয়তো ব্যস্ত থাকতে দেখা যাবে ভারতের কাদা-জলমাখা প্রত্যন্ত কোনো গ্রামের নারী ও শিশুদের নিয়ে।
নিজের দেশকে গর্বিত করতে পেরে দারুণ খুশি মানুষী ছিল্লর। ছবি: ইনস্টাগ্রামনিজের স্কুল-কলেজে ভীষণ জনপ্রিয় মানুষী শনিবার বিশ্বসুন্দরীর খেতাব পাওয়ার পর ইনস্টাগ্রামে সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। নিজের দেশকে গর্বিত করতে পেরে মানুষী অনেক আনন্দিত। আর উচ্ছ্বসিত জীবনে একটি নতুন যাত্রা শুরু করছেন বলে।
প্রথম ভারতীয় হিসেবে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ খেতাব জেতা রিটা ফারিয়া পেশায় চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ১৯৬৬ সালে এই মুকুট জেতেন। ছোটবেলা থেকে সাবেক মিস ওয়ার্ল্ড রিটা ফারিয়া আর নিজের মা নীলম ছিল্লারকে নিজের আদর্শ মনে করেন মানুষী ছিল্লার। রিটা ফারিয়া এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে প্রথম ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ খেতাব জয় করেন।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *